গলাচিপায় জামাইর হাতে শশুরের বৃদ্ধাঙ্গুল কর্তন আসামী গ্রেফতার

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:
পটুয়াখালীর গলাচিপায় জামাইর হাতে শশুরের আঙ্গুল কর্তনের ঘটনা ঘটেছে। পরে আসামীকে গ্রেফতার করেছে গলাচিপা থানা পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের সুহরী গ্রামে।

গত ২৯ মার্চ বিকাল চারটার দিকে শশুরের নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। শশুর হচ্ছেন ঐ গ্রামের মৃতঃ সুফিয়ান মৃধার ছেলে সাইফুল মৃধা (৩৭) এবং জামাই হচ্ছে একই এলাকার মৃতঃ আবুল মৃধার ছেলে ইমন মৃধা (২২)। এ বিষয়ে সাইফুল মৃধার স্ত্রী গলাচিপা থানায় রবিবার রাতে তিনজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।

আসামীরা হলেন, ইমন মৃধা, মামুন মৃধা ও রেশমা বেগম। মোসাঃ হোসনেয়ারা বেগম জানান, ইমন মৃধা পাঁচ বছর আগে তার মেয়ে রিমা বেগমের সাথে ইসলামী শরাহ শরীয়ত মোতাবেক বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার পরে একটি পুত্র সন্তান জন্মগ্রহন করলেও, বিবাহের পর থেকে যৌতুকের জন্য তার শশুর সাইফুলকে বিভিন্নভাবে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেন।

গতকাল রবিবার বিকাল চারটার দিকে ইমন, মামুন ও রেশমা হোসনেয়ারার ঘরে ঢুকে তার স্বামী সাইফুলের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চড়াও হয়ে ইমনের হাতে থাকা ছেনা দিয়ে সাইফুলের মাথার উদ্দেশ্যে কোপ দেয়। সাইফুল হাত দিয়ে ফিরানোর চেষ্টা করিলে তার বৃদ্ধাঙ্গুল পড়ে যায়। ঘটনাস্থলে সাইফুল মৃধা অজ্ঞান হয়ে পরে। পরে তাকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ ইমাম শিকদার বলেন, সাইফুল মৃধার বৃদ্ধাঙ্গুল পড়ে যায়। তার অবস্থা আসঙ্কাজনক দেখে তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে রেফার করা হয়।

এ বিষয়ে সাইফুলের স্ত্রী হোসনেয়ারা বাদী হয়ে গলাচিপা থানায় তিনজনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে। যাহার মামলা নং ২৬ তারিখ ২৯/০৩/২০২০।

এ বিষয়ে গলাচিপা থানার এসআই জাকির হোসেন বলেন, মামলা দায়ের হওয়ার পরে মামুন মৃধাকে আটক করা হয় এবং সোমবার জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। উল্লেখ্য এই আসামীদের বিরুদ্ধে গলাচিপা থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: