ঝালকাঠিতে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ভাষা সৈনিক লাইলি বেগমের বাড়িতে হামলার অভিযোগ

ঝালকাঠি প্রতিনধি :

ঝালকাঠি শহরের পূর্বচাদকাঠিতে ভাষা সৈনিক লাইলি বেগমের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাঁর  চার মেয়ে ও দুই নাতনীকে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে লাইলি বেগমের মেয়ে মুসলিমা খাতুনের একটি হাত ভেঙ্গে গেছে। তাকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হামলার শিকার শাহিন পারভীন নাজমার অভিযোগ একলাখ টাকা চাঁদার দাবিতে স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা মাঈনুল ইসলাম, মো. সুজন ও  নান্নু মুনশীর নেতৃত্বে ২৫/৩০ জন সন্ত্রাসী বুধবার রাত আটটার দিকে এ হামলা চালিয়েছে। অপর পক্ষের অভিযোগ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শাহিন পরভীন নাজমার বাড়ির সামনে পৌরসভার পক্ষ থেকে সাধারণ মানুষের হাত  ধোয়ার জন্য একটি ব্যাসিন বসানো হয়। বুধবার দিনের যে কোন সময় সেটি ভেঙ্গে পাশের খালে ফেলা হয়। স্থানীয় কিছু যুবক এর জন্য নাজমার পরিবারকে দায়ী করছে। শাহিন পারভীন নাজমার অভিযোগ সামাজিকভাবে তাদের জব্দ করতে মিথ্যা অপবাদ ছড়ানো হচ্ছে।

তার কাছে একলাখ টাকা চাঁদা চেয়ে না পেয়ে সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্নসম্পাদক মো. মাঈনুল ইসলাম ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক জিয়াউল করিম জয় ওরফে সুজন মিথ্যা অপবাদ ছড়াচ্ছেন। হামলা এবং চাঁদা দাবির বিষয়ে  সদ্য প্রয়াত ভাষা সৈনিক লাইলি বেগমের মেয়ে শাহিন পরভীন নাজমা বাদী হয়ে বুধবার রাতেই ঝালকাঠি থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন। এজাহারে মাঈনুল ইসলাম, জিয়াউল করিম সুজন, নান্নু মুনশীর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা ২০/২৫জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলার এজাহারে শাহীন পরভীন নাজমা দাবি করেন গত বুধবার সকাল দশটায় মাঈনুল ও সুজনের নেতৃত্বে ১০/১২ জন পূর্বচাদকাঠি তাদের বাড়িতে গিয়ে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে এবং রাত আটটার মধ্যে টাকা রেডি রাখতে বলে। রাত আটটার দিকে মাঈনুল, সুজন ও নান্নুর নেতৃত্বে ২০/২৫ জন সন্ত্রাসী পুনরায় নাজমার কাছে দাবিকৃত একলাখ টাকা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় আসামীরা নাজমাদের বসত ঘরের দরজা জানালা ও বাড়ির সামনের স্টল ও দোকান ভাংচুর করে। এ সময় নাজমার বোন মুসলিমা খাতুন বাধা দিতে আসলে তাকেও পিটিয়ে আহত করা হয়। এতে মুসলিমার একটি হাত ভেঙ্গে যায়। আহতদের ডাকচিৎকারে স্থানীয় লোকজন ছুটে এলে হামলাকারিরা পালিয়ে যায়। মুসলিমা বেগমকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় কাউন্সিলর ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাফিজ আল মাহমুদ বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনসাধারণের ঘনঘন হাত ধোয়ার জন্য ঝালকাঠি পৌরসভার ঘনবসতিপূর্ন এলাকায় পানির লাইনসহ কিছু বেসিন বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় পৌর কতৃপক্ষ। শাহিন পরভীন নাজমার বাড়ির কাছে পৌরসভার জায়গায় জনসাধারণের হাত ধোয়ার জন্য একটি  বেসিন বসানো হয়। স্থানীয়রা আমার কাছে অভিযোগ করেন যে শাহীন পারভীন নাজমার মেয়ে রুপা বুধবার ওই  বেসিনটি ভেঙ্গে পাশের খালে ফেলে দেয়। স্থানীয় যুবকরা খবর পেয়ে বেসিন ফেলে দেয়ার কারণ জানতে চাইলে শাহীন পরভীন নাজমা, তার একাধিক বোন ও বোনের মেয়েরা তাদের ওপর চড়াও হয়। এ সময় আত্মরক্ষার জন্য হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। কোন চাঁদা দাবি বা হামলা ভাংচুরের ঘটনা সম্পূর্ন মিথ্যা।

হামলার অভিযোগে অভিযুক্ত সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্মসম্পাদক মাঈনুল ইসলাম বলেন, হামলা বা চাঁদাদাবির কোন ঘটনা ঘটেনি কিছু ছোট ভাইরা বেসিন ভাঙ্গার কারন জানতে চাইলে নাজমা এবং তার মেয়ে ও বোনের মেয়েরা দা-বটি নিয়ে হামলা করে। এতে আমাদের এক ছোট ভাই গোপাল আহত হয়।

ঝালকাঠি থানার অফিসার ইনচার্জ মো. খলিলুর রহমান বলেন, শাহীন পারভীন নাজমার একটি চাঁদাদাবি, ভাংচুর ও স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নেয়ার একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা যাচাইয়ের জন্য এস.আই গোলাম হাফেজকে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: