বরগুনা বাসীর জন্য এস এম মশিউর রহমান শিহাবের বার্তা

প্রিয় বরগুনাবাসী
.
আমার সালাম ও শ্রদ্ধা রইলো।
.
চলমান করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সারা বিশ্ব আজ উদ্বিগ্ন। জানিনা মহান সৃষ্টিকর্তা আমাদের বাংলাদেশের ভাগ্যে কী লিখে রেখেছেন! কী লিখে রেখেছেন আমার-আপনার ছোট্ট জনপদ বরগুনা ও বরগুনার গণমানুষের ভাগ্যে!
.
এই কঠিন দুর্যোগে সকলের প্রতি আমার একান্ত বিনীত অনুরোধ- দয়া করে সবাই ঘরে থাকুন। কেউ কারো বাড়িতে যাবেন না। আপনার বাড়িতেও কোন স্বজন আসতে চাইলেও তাকে বারণ করুন। অতি বিশেষ প্রয়োজন না হলে ঘরের বাইরে বের হবেন না। এতে সুরক্ষিত থাকবে আপনার ছেলে, মেয়ে, স্ত্রী, বৃদ্ধ বাবা-মাসহ আপনার পরিবার-পরিজন।
.
প্রিয় বরগুনাবাসী, আপনারা জানেন, জীবনে অনেক কষ্ট করেছি। শ্বাশ্বত গ্রামীন জীবনের সুখ-দুঃখ আমার চিরচেনা। স্বাভাবিক সময়ে গ্রামের কত মানুষের ঘরে ভাত থাকে না। ভাত থাকে তো তরকারি থাকে না। একটু মুরগীর মাংস, একটু গরুর মাংস কিংবা এক চুমুক ফিরনীর জন্য কুলখানী বা জোমাতের জন্য উম্মুখ হয়ে থাকে কত অসহায় দরিদ্র পরিবার।
.
আর এখন ভয়াবহ করোনাকাল। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সারাদেশে নেমে এসেছে ঘোর অমানিশা। এখনকার প্রতিটি ঘন্টা, প্রতিটি দিন এক-একটি দরিদ্র অসহায় পরিবারের জন্য কতটা অসহনীয় তা আমি জানি। ঘরে খাবার না থাকলে অসহায় ছেলে-মেয়ে আর বৃদ্ধ বাবা-মায়ের দিকে তাকানো কতটা ভয়াবহ কষ্টের তাও আমার জানা।
.
এসব কষ্টের কথা বিবেচনায় রেখে আমার যৎসামান্য সামর্থ্য অনুযায়ী আমি চাই- সত্যিকারের অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের পাশে দাঁড়াতে। ইতোমধ্যেই আমি আমার এলাকার কিছু তরুণদের নিয়ে তৈরী করেছি একটি স্বেচ্ছাসেবক টিম তাদের দিয়ে ইতিপূর্বে মাক্স হ্যান্ড স্যানিটাইজার সাবান ইত্যাদি পরিবেশন করিয়েছি। যারা স্থানীয়ভাবে নিতান্তই দরিদ্র পরিবারগুলো বাছাই করে সেসব ঘরে চাল-ডালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের একটি করে প্যাকেট পৌঁছে দিচ্ছে এবং দিতে থাকবে।
.
এছাড়াও বরগুনার সুযোগ্য জেলা প্রশাসকের হাতে দেশের এই দুঃসময়ে এককালীন কিছু অর্থ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি। একইসাথে জেলার সকল স্বচ্ছল ব্যক্তিবর্গকে আমি বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি তারাও যেন যেভাবে পারেন নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী নিকটস্থ দরিদ্র পরিবারের পাশাপাশি জেলা প্রশাসনকে এককালীন কিছু অর্থ সহযোগিতা দেন। আর এভাবে সবাই মিলে এগিয়ে আসলে তবেই আমরা পারবো ভয়াল করোনা মোকাবেলায় জয়ী হতে। অন্যথায় আমাদের অনেক খেসারত দিতে হতে পারে।
.
সবাই ভাল থাকবেন, ঘরে থাকবেন, নিরাপদে থাকবেন, সরকারি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন এমন প্রত্যাশা রইলো।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: